Tuesday, July 23, 2024
প্রচ্ছদবিশ্বএশিয়া২০৫০ সাল নাগাদ বাংলাদেশের এক-তৃতীয়াংশ এলাকা তলিয়ে যাওয়ার আশঙ্কা

২০৫০ সাল নাগাদ বাংলাদেশের এক-তৃতীয়াংশ এলাকা তলিয়ে যাওয়ার আশঙ্কা

Published on

সমুদ্রপৃষ্ঠের উচ্চতা বেড়ে যাওয়ার কারণে ২০৫০ সাল নাগাদ বাংলাদেশের এক-তৃতীয়াংশ এলাকা তলিয়ে যাওয়ার আশঙ্কার কথা মঙ্গলবার প্রকাশিত এক গবেষণা প্রতিবেদনে উঠে এসেছে।

বিশ্বের প্রভাবশালী বিজ্ঞান সাময়িকী নেচার কমিউনিকেশনে প্রকাশিত নতুন এক গবেষণা প্রতিবেদনে ভয়াবহ এই আশঙ্কার কথা তুলে ধরে বলা হয়, এ কারনে ২০৫০ সালের মধ্যেই বাংলাদেশের উপকূলের চার কোটি মানুষ বাস্তুচ্যুত হওয়ার ঝুঁকিতে রয়েছেন।

জলবায়ু পরিবর্তনবিষয়ক গবেষণা প্রতিষ্ঠান ‘ক্লাইমেট সেন্ট্রাল’ থেকে বৈশ্বিক পরিসরে এই গবেষণা করা হয়েছে। মূলত সমুদ্রপৃষ্ঠের উচ্চতা বেড়ে যাওয়ার ফলে বিশ্বের উপকূলীয় দেশ ও দ্বীপরাষ্ট্রগুলোতে কী প্রভাব পড়বে, তা গবেষণায় উঠে এসেছে। ‘ক্লাইমেট সেন্ট্রাল’-এর দুই গবেষক স্বট কে কাল্প এবং বেনজামিন এইচ স্ট্রাউস যৌথভাবে গবেষণাটির নেতৃত্ব দিয়েছেন। মার্কিন মহাকাশ গবেষণা সংস্থা নাসা থেকে নেওয়া স্যাটেলাইটের ছবি এই গবেষণার কাজে ব্যবহার করা হয়েছে।

যুক্তরাষ্ট্র ভিত্তিক জলবায়ু পরিবর্তন বিষয়ক বেসরকারি গবেষণা প্রতিষ্ঠান ‘ক্লাইমেট সেন্ট্রাল’ এর বৈশ্বিক পরিসরে তৈরি করা এই গবেষণা প্রতিবেদনে বলে হয়েছে, চলতি শতাব্দীর শেষে নাগাদ দেশটিতে ক্ষতির শিকার এই মানুষের সংখ্যা সাত কোটিতে পৌঁছাবে। বিশ্বের উপকূলীয় দেশ ও দ্বীপরাষ্ট্র গুলোতেও সমুদ্রপৃষ্ঠের উচ্চতা বেড়ে যাওয়ার ব্যাপক প্রভাব পড়বে বলে পূর্বাভাস দেয়া হয়েছে প্রতিবেদনটিতে।

বলে হয়েছে, এর ফলে সবচেয়ে বেশি আক্রান্ত হবে এশীয় দেশগুলো যার মধ্যে বাংলাদেশ ছাড়াও রয়েছে বিশ্বের ৭০ শতাংশ মানুষ অধ্যুষিত ভারত, চীন, ইন্দোনেশিয়া, থাইল্যান্ড, ভিয়েতনাম ও জাপান।

পরিবেশ ও জলবায়ু পরিবর্তন বিশেষজ্ঞ সালিমুল হক বলেন, সমুদ্রপৃষ্ঠের উচ্চতা বৃদ্ধির কারণে বাংলাদেশের ওপর কী প্রভাব পড়তে যাচ্ছে, তার একটা ধারণা ওই গবেষণা প্রতিবেদন থেকে পাওয়া যায়। এতে দেখা যাচ্ছে, বিপদ আরও অনেক এগিয়ে আসছে। জলবায়ু পরিবর্তনের কারণে বাংলাদেশের কোন অঞ্চলে কী প্রভাব ফেলবে এবং তা কীভাবে মোকাবিলা করা যাবে, এ নিয়ে আরও বিস্তারিত গবেষণা হওয়া দরকার।

এর আগে গত সেপ্টেম্বরে জাতিসংঘের জলবায়ু পরিবর্তনসংক্রান্ত প্যানেল আইপিসিসি থেকে বিশ্বের সমুদ্র নিয়ে একটি প্রতিবেদন প্রকাশ করা হয়। তাতেও আশঙ্কার চেয়ে দ্রুত হারে সমুদ্রপৃষ্ঠের উচ্চতা বাড়ছে বলে উল্লেখ করা হয়। ওই প্রতিবেদনেও সমুদ্রপৃষ্ঠের উচ্চতা বেড়ে যাওয়ার কারণে বাংলাদেশের এক-তৃতীয়াংশ মানুষ বিপদে পড়তে পারে বলে আশঙ্কা প্রকাশ করা হয়।

নেচার কমিউনিকেশনে প্রকাশিত গবেষণা প্রতিবেদনের তথ্য বলছে, সমুদ্রের নোনাপানির ঝুঁকিতে পড়তে যাচ্ছে উপকূলীয় এলাকা।

পানিসম্পদ মন্ত্রণালয়ের তথ্য অনুযায়ী, দেশের উপকূলের বেশির ভাগ এলাকায় বেড়িবাঁধ রয়েছে। ওই বাঁধগুলোর গড় উচ্চতা ১২ থেকে ১৫ ফুট। কিন্তু সমুদ্রপৃষ্ঠের উচ্চতা বেড়ে যাওয়ার প্রভাব মোকাবিলায় এসব বাঁধ যথেষ্ট উঁচু নয়। এসব বাঁধ তিন থেকে পাঁচ ফুট উঁচু করার কাজ চলছে এখন।

পরিবেশ অধিদপ্তরের মহাপরিচালক এ কে এম রফিক আহমেদ বলেন, বাংলাদেশ জলবায়ু পরিবর্তন মোকাবিলায় নিজেদের কার্বন নিঃসরণ কমানো এবং উদ্ভূত পরিস্থিতি মোকাবিলায় নানা ধরনের অবকাঠামো গড়ে তুলছে। তবে এ ক্ষেত্রে মূল দায়িত্ব উন্নত রাষ্ট্রগুলোর। তাদের উচিত হবে দ্রুত কার্বন নিঃসরণ কমানো ও জলবায়ু পরিবর্তন মোকাবিলায় বাংলাদেশের মতো রাষ্ট্রগুলোকে সহায়তা দেওয়া।

নেচার কমিউনিকেশনে প্রকাশিত গবেষণা প্রতিবেদন বলা হয়, শিল্পোন্নত রাষ্ট্রগুলো এখনো অঙ্গীকার অনুযায়ী কার্বন নিঃসরণ কমাচ্ছে না। ফলে বিশ্বের সমুদ্রপৃষ্ঠের উচ্চতা দ্রুত বাড়ছে। এত দিন ধারণা ছিল, এই শতাব্দীর মধ্যে, অর্থাৎ ২১০০ সালের মধ্যে বিশ্বের সমুদ্রপৃষ্ঠের উচ্চতা দুই মিটার বাড়বে। নতুন তথ্য বলছে, ২০৫০ সালের মধ্যেই একই পরিমাণ সমুদ্রপৃষ্ঠের উচ্চতা বাড়বে। এত দিন ধারণা ছিল, বিশ্বের ২৫ কোটি মানুষ সমুদ্রপৃষ্ঠের উচ্চতা বেড়ে যাওয়ার কারণে বিপদে পড়বে। এতে বিপদে পড়া মানুষের সংখ্যা ৬৪ কোটিতে দাঁড়াবে।

ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয়ের ইমেরিটাস অধ্যাপক আইনুন নিশাত বলেন, ২০৫০ সালের মধ্যে সমুদ্রপৃষ্ঠের উচ্চতা বেড়ে বাঁধ ভেঙে উপকূলীয় এলাকা তলিয়ে যাওয়ার আশঙ্কা কম। কিন্তু মূল ঝুঁকি হচ্ছে নদীতে লবণাক্ততা বাড়বে। একই সঙ্গে ঘূর্ণিঝড়ের মাত্রাও বেড়ে যাবে। নদীতে লবণাক্ততা বেড়ে যাওয়ার কারণে ফরিদপুর, গোপালগঞ্জ, শরীয়তপুর ও মাদারীপুরের মতো জেলার বাসিন্দাদের বিপদ বাড়বে। তাদের জীবন-জীবিকা ঝুঁকিতে পড়বে। সে জন্য কৃষি ও অবকাঠামোর ক্ষেত্রে এখন থেকেই প্রস্তুতি বাড়াতে হবে।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, বিশ্বের মোট জনসংখ্যার ৭০ শতাংশ থাকে ৭টি দেশে। দেশগুলো হলো বাংলাদেশ, ভারত, চীন, ভিয়েতনাম, ইন্দোনেশিয়া, থাইল্যান্ড ও জাপান। সমুদ্রপৃষ্ঠের উচ্চতা বেড়ে যাওয়ার কারণে এসব দেশের এক-তৃতীয়াংশ মানুষ বিপদাপন্ন হবে।

সর্বশেষ

কুষ্টিয়ায় আর্জেন্টিনা-ব্রাজিল সমর্থকদের সংঘর্ষে আহত ৭

কুষ্টিয়া সদর উপজেলায় বিশ্বকাপ ফুটবলের ফাইনাল খেলা নিয়ে বাগ্‌বিতণ্ডার পর সংঘর্ষে জড়িয়ে অন্তত সাতজন...

কুষ্টিয়ায় শিক্ষার্থীকে শ্লীলতাহানি, বরখাস্ত প্রধান শিক্ষককে পুলিশে সোপর্দ

কুষ্টিয়ার কুমারখালীতে পঞ্চম শ্রেণীর এক শিক্ষার্থীকে শ্লীলতাহানির মামলায় বরখাস্ত প্রধান শিক্ষককে বৃহস্পতিবার (১৫ ডিসেম্বর)...

কুষ্টিয়ায় পৃথক সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ২

কুষ্টিয়ায় পৃথক সড়ক দুর্ঘটনায় একটি শিশুসহ দু’জনের মৃত্যু হয়েছে।   বৃহস্পতিবার (১৫ ডিসেম্বর) দুপুরের দিকে...

পাসপোর্ট সংশোধনে সরকারের নতুন নির্দেশনা

এনআইডির তথ্য অনুযায়ী পাসপোর্ট রি-ইস্যুর নির্দেশ স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের জাতীয় পরিচয়পত্রে (এনআইডি) দেওয়া তথ্য অনুযায়ী পাসপোর্ট...

আরও পড়ুন

কুষ্টিয়া করোনা আপডেট: আক্রান্ত হাজার ছাড়াল | নতুন শনাক্ত ৪৫ জন

কুষ্টিয়া মেডিকেল কলেজের পিসিআর ল্যাব থেকে গত ২৪ ঘন্টায় কুষ্টিয়া জেলার ১২৮ টি রিপোর্ট...

কুষ্টিয়া দৌলতপুরের ইউএনও করোনা আক্রান্ত

কুষ্টিয়ার দৌলতপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শারমিন আক্তার করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। রবিবার কুষ্টিয়া পিসিআর ল্যাবের...

করোনা: কুষ্টিয়ার কুমারখালীতে অগ্রণী ব্যাংক লকডাউন

এক সপ্তাহে ব্যাংকের পাঁচ কর্মকর্তা-কর্মচারী করোনায় আক্রান্ত হওয়ায় কুষ্টিয়ায় অগ্রণী ব্যাংকের কুমারখালী শাখা লকডাউন...