Thursday, July 18, 2024
প্রচ্ছদকুষ্টিয়ামিরপুরশুধু মোবাইল ফোন বন্ধ রাখার দায়ে সৎ কর্মঠ নিরহঙ্ককারী কর্তকর্তার ৬ বছর...

শুধু মোবাইল ফোন বন্ধ রাখার দায়ে সৎ কর্মঠ নিরহঙ্ককারী কর্তকর্তার ৬ বছর ধরে ইনক্রিমেন্ট বন্ধ

Published on

ছবির এই মানুষটির নাম আব্দুস সাত্তার (৫৬)। তিনি কুষ্টিয়ার মিরপুর উপজেলা কটন ইউনিট অফিসার।

আব্দুস সাত্তার নামের এই কর্মকর্তা ২০০৬ সালে যখন এ উপজেলায় যোগদান করেন,তখন তাঁর দপ্তরের জন্য একটি মোটর সাইকেল বরাদ্দের আদেশ হয়েছিল। কিন্তু আদেশে মোটর সাইকেলটি ব্যবহারের জন্য তেলের বরাদ্দ না থাকায় অফিসে তাঁর ব্যবহারের জন্য মোটর সাইকেলটি আর তিনি উত্তোলন করেননি। কারন তিনি মনে করেন তেলের বরাদ্দ ছাড়া অফিসিয়াল কাজে মোটর সাইকেল ব্যবহার করলে হয় ব্যাক্তিগতভাবে বেতনের টাকা থেকে, নইলে অসাধু উপায়ে তাঁকে তেলের বিল পরিশোধ করতে হবে।

তাই তিনি জং ধরা, মরচে পড়া ভালো ব্রেক ধরেনা,বেলও ঠিকমতো বাজেনা, দিনরাত খোলা ময়দানে ফেলে রাখলেও চোর চুরির কথা ভাবেনা এমন একটি সাইকেলে চড়ে চষে বেড়ান মিরপুর উপজেলার এক প্রান্ত থেকে অন্য প্রান্ত পর্যন্ত।

অতি সাধারন বেশভুষায় চলাচলে অভ্যস্ত আব্দুস সাত্তার কর্মপাগল একজন কর্মকর্তা। শুক্র ও শনিবার সাপ্তাহিক ছুটি না কাটিয়ে তিনি তুলা চাষের উন্নয়নে ছুটে চলেন উপজেলার এ প্রান্ত থেকে অন্য প্রান্ত পর্যন্ত।

একযুগ ধরে তিনি এ উপজেলায় কর্মরত থাকলেও তাঁর সততা নিয়ে কাউকে অঙ্গুলী উত্তোলনের খবর মেলেনি।

মানুষটির ব্যাতিক্রম প্রতিভাও অনেককে মুগ্ধ করে। আব্দুস সাত্তার দেশের ৬৪ জেলা ও ৪৯০টি উপজেলার নাম একনাগাড়ে মুখস্থ বলতে পারেন।

২০১৩ সালে মিরপুর উপজেলার ৪০ তুলা চাষীর জন্য সরকারী ট্রেনিংয়ে হয়েছিল। ওই ট্রেনিংয়ে কৃষকদের বরাদ্দ ছিল ১৪০ টাকা। অথচ তাদের দেয়া হয়েছিল মাত্র ২০ টাকার নাস্তা। এ নিয়ে ট্রেনিংয়ে উপস্থিত তুলা চাষীরা বিক্ষুব্ধ হয়ে ওঠে। বিক্ষুব্ধ তুলা চাষীদের যৌক্তিক দাবির প্রতি সমর্থন জানিয়েছিলেন আব্দুস সাত্তার। এতে অসন্তুষ্ট হন সেখানে উপস্থিত আব্দুস সাত্তারের উধ্বতন এক কর্মকর্তা।

পরে ওই কর্মকর্তা আব্দুস সাত্তারের বিরুদ্ধে মোবাইল বন্ধ থাকার অভিযোগ দেখিয়ে তাকে শোকজ করে ২০১৩ সালে তাঁর বার্ষিক বর্ধিত বেতন (ইনক্রিমেন্ট) বন্ধ করে দেন। 

গত ৬ বছর ধরে আব্দুস সাত্তার সোকজের লিখিত জবাব দেয়া সত্বেও তা প্রত্যাহার করা হয়নি।

উল্লেখ্য, মিরপুর উপজেলায় কয়েকযুগ ধরে বিষবৃক্ষ তামাক চাষে একচ্ছত্র আধিপত্য থাকায় অন্যান্য ফসলের উল্লেখযোগ্য আবাদ হয়না। সেখানে তুলার আবাদ ভাবাই যায় না। ২০০৬ সালে আব্দুস সাত্তার এ উপজেলায় যোগদান করেন। তখন এই উপজেলায় তুলা চাষ ছিল খুবই অজনপ্রিয় একটি আবাদের নাম। তখন এ উপজেলায় মাত্র ৩০ বিঘা জমিতে তুলার চাষ হত।

মাত্র ১২ বছরে আব্দুস সাত্তারের অনেকটা একক প্রচেষ্টায় তিনি তুলা চাষকে নিয়ে গেছেন অনন্য মাত্রায়। বর্তমানে এ উপজেলায় সাড়ে ৯ শত বিঘা জমিতে তুলার চাষ হচ্ছে। একই সাথে তুলার আবাদ এখন এ উপজেলার জনপ্রিয় আবাদে পরিণত হয়েছে।

সর্বশেষ

কুষ্টিয়ায় আর্জেন্টিনা-ব্রাজিল সমর্থকদের সংঘর্ষে আহত ৭

কুষ্টিয়া সদর উপজেলায় বিশ্বকাপ ফুটবলের ফাইনাল খেলা নিয়ে বাগ্‌বিতণ্ডার পর সংঘর্ষে জড়িয়ে অন্তত সাতজন...

কুষ্টিয়ায় শিক্ষার্থীকে শ্লীলতাহানি, বরখাস্ত প্রধান শিক্ষককে পুলিশে সোপর্দ

কুষ্টিয়ার কুমারখালীতে পঞ্চম শ্রেণীর এক শিক্ষার্থীকে শ্লীলতাহানির মামলায় বরখাস্ত প্রধান শিক্ষককে বৃহস্পতিবার (১৫ ডিসেম্বর)...

কুষ্টিয়ায় পৃথক সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ২

কুষ্টিয়ায় পৃথক সড়ক দুর্ঘটনায় একটি শিশুসহ দু’জনের মৃত্যু হয়েছে।   বৃহস্পতিবার (১৫ ডিসেম্বর) দুপুরের দিকে...

পাসপোর্ট সংশোধনে সরকারের নতুন নির্দেশনা

এনআইডির তথ্য অনুযায়ী পাসপোর্ট রি-ইস্যুর নির্দেশ স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের জাতীয় পরিচয়পত্রে (এনআইডি) দেওয়া তথ্য অনুযায়ী পাসপোর্ট...

আরও পড়ুন

টিউশনি করে গোল্ডেন এ প্লাস পেলেন কুষ্টিয়ার জমজ দুই বোন

সংসারের একমাত্র উপার্জনক্ষম বাবা দীর্ঘদিন ধরে মানসিক রোগী। টিউশনি করে কোন রকমে সংসার চালাচ্ছেন...

ভারতীয় সিরিয়াল ‘সিআইডি’ দেখে কুষ্টিয়ার ফুল ব্যবসায়ী আবু তৈয়ব হত্যার পরিকল্পনা

কুষ্টিয়ার মিরপুরে ফুল ব্যবসায়ী আবু তৈয়ব (৫৪) হত্যার পর দ্রুততার সাথে রহস্য উদঘাটন করেছে...

কুষ্টিয়ার মিরপুরে র‌্যাবের অভিযানে ইয়াবাসহ আটক ২

কুষ্টিয়ার মিরপুরের কাতলামারী বাজার থেকে ইয়াবাসহ টুটুল হোসেন (২২) ও তৌফিক রানা সিয়াম (২০)...