Wednesday, December 7, 2022
প্রচ্ছদখুলনা বিভাগযশোরমাদক প্রতিরোধে এবার কোরআন ছুঁয়ে শপথ নিলেন ৬০ অফিসার

মাদক প্রতিরোধে এবার কোরআন ছুঁয়ে শপথ নিলেন ৬০ অফিসার

Published on

যশোরকে মাদক মুক্ত করতে এবার পবিত্র কোরআন ও গীতা ছুঁয়ে শপথ নিয়েছেন জেলার ৬০ জন পুলিশ অফিসার। ব্যক্তি স্বার্থ ভুলে মাদক ব্যবসা ও মাদক ব্যবহার রোধে মহান আল্লাহর নামে এই শপথ নেন থানা, ডিবি, ডিএসবি, ফাঁড়ি, ক্যাম্প, তদন্ত কেন্দ্র ও ট্রাফিক বিভাগের অফিসারগন।

দুপুরে যশোরের পুলিশ সুপারের সভা কক্ষে সিনিয়র অফিসারদের উপস্থিতিতে এই নজিরবিহীন শপথ গ্রহন করেন অফিসারগন। মাদকের বিরুদ্ধে যুদ্ধ আরও জোরদার করতে পুলিশের এ কঠোর অবস্থান। শপথ নেয়ার পরও কোনো পুলিশ অফিসার মাদক ব্যবসায়ীর প্রতি কোনো প্রকার নমনীয়তা দেখালে তার বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেয়ার হুঁশিয়ারী উচ্চারণ করা হয়েছে সিনিয়র অফিসারদের পক্ষে।

গত বছর প্রথম দফায় জেলার ৩০টি ইউনিয়ন মাদক মুক্ত করতে ১শ’ দিনের এবং দ্বিতীয় দফায় ৬৩ ইউনিয়নকে মাদক মুক্ত করতে ১শ’১ দিনের কর্মসূচি গ্রহণ করে যশোরের পুলিশ। চলে ‘ডোর টু ডোর’ অভিযান। স্থানীয় জনপ্রতিনিধি, মিডিয়া কর্মী, ধর্মীয় নেতা, সুশীল সমাজ ও শিক্ষা প্রতিষ্ঠানকে সম্পৃক্ত করে সরকারের মাদক বিরোধী কার্যক্রমকে গতিবান করে। প্রথম দফার অভিযানে ৯ হাজার ১শ’৩৪ জন আটক ও ১হাজার ২৬ টি মামলা হয়। পরবর্তীতে ৬৩টি ইউনিয়নে মাদক প্রতিরোধ অভিযানের ৫৪২টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানকে সচেতনতার আওতায় আনা হয়। এছাড়া আটক ও উদ্ধার প্রশংসিত হয়।

ওই অভিযান শেষ হওয়ার কিছুদিন পার হতেই বিভিন্ন স্পটে আবারও মাথাচাড়া দিয়ে ওঠে মাদক ব্যবসায়ীরা। এরপর প্রধানমন্ত্রী তথা সরকারিভাবে মাদককে না বলতে এবং মাদক কারবারীদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নিতে হুঁশিয়ারী দেয়া হলে যশোরের পুলিশ আরও জোরেসোরে মাঠে নামে। মাদক নির্মূলে জেলার সার্বিক চিত্র চোখে পড়ার মত পর্যায়ে পৌঁছায়। এরপরও পুলিশের অনেক অসাধু কর্মকর্তা মাদক ব্যবসায়ীদের সাথে সখ্যতা করে চলছেন, অনেকে অনৈতিক সুবিধা আদায় করছেন এমন নেতিবাচক তথ্য যশোর পুলিশের উপর মহলে যায়। এরপর ৮ জুলাই দুপুরে জেলা পুলিশের সকল উইনিটের প্রধান ও অফিসারগনকে নিয়ে জরুরী সভায় বসেন পুলিশ সুপার আনিসুর রহমান বিপিএম পিপিএম বার। এসময় জেলার উর্ধŸতন অফিসারগন উপস্থিত ছিলেন।

এ সময় মুসলিম পুলিশ অফিসারগন পবিত্র কোরআন ও হিন্দু অফিসারগনকে পবিত্র গীতা ছুঁইয়ে শপথ বাক্য পাঠ করানো হয়। তারা শপথ করেন ব্যক্তি স্বার্থ ভুলে দায়িত্বপ্রাপ্ত এলাকায় মাদক ব্যবসা ও মাদক ব্যবসায়ীদের প্রতি কঠোর মনোভাব পোষণ করবেন।

এ ব্যাপারে পুলিশ সুপার আনিসুর রহমান গ্রামের কাগজকে জানান, মাদক ও মাদক বিক্রেতারা দেশ ও জাতির শত্রু। এই মাদক নির্মূলে দায়িত্বপ্রাপ্ত পুলিশ অফিসারতো বটেই, দেশ প্রেমিক সব নাগরিককে এগিয়ে আসা উচিত। তিনি আরও বলেন, শপথ নেয়ার পর যদি কোনো পুলিশ অফিসার মাদকের প্রতি শৈথিল্য প্রদর্শন করেন তাহলে তার বিরুদ্ধে কঠোর আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে।

এর আগেও মাদক সংক্রান্ত ব্যাপারে অভিযুক্ত পুলিশ সদস্যদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে। এছাড়া মাদক ব্যবসায়ী কিংবা সেল্টারদাতা কারো রেহাই নেই।

সর্বশেষ

কুষ্টিয়ায় মর্মান্তিক সড়ক দুর্ঘটনায় ঝরে গেল ২ প্রাণ

কুষ্টিয়া ভেড়ামারা উপজেলায় ট্রাকের চাপায় মোটরসাইকেল চালকসহ দুইজন নিহত হয়েছেন। শনিবার (৩ ডিসেম্বর) সকাল সাড়ে...

ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ে পাইলিংয়ের সময় ক্রেন ছিড়ে নির্মাণ শ্রমিকের মৃত্যু

ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ে (ইবি) নির্মাণাধীন দ্বিতীয় প্রশাসন ভবনের পাশে পাইলিংয়ের সময় মাথার আঘাত পেয়ে দুর্ঘটনাবশত...

এসএসসি পরীক্ষায় যশোর বোর্ডে প্রথম হলেন কুষ্টিয়ার শিক্ষার্থী নাজিফা

এ বছর মাধ্যমিক পরীক্ষায় যশোর বোর্ডে প্রথম হয়েছে কুষ্টিয়া সরকারি বালিকা উচ্চবিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী নাজিফা...

টিউশনি করে গোল্ডেন এ প্লাস পেলেন কুষ্টিয়ার জমজ দুই বোন

সংসারের একমাত্র উপার্জনক্ষম বাবা দীর্ঘদিন ধরে মানসিক রোগী। টিউশনি করে কোন রকমে সংসার চালাচ্ছেন...

আরও পড়ুন

যশোরে প্রধানমন্ত্রী | ‘নৌকায় ভোট দিয়ে জয়ী করুন, যা চাইবেন তার চেয়ে বেশি দেব’

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা যশোরবাসীর কাছে আগামী নির্বাচনে নৌকা মার্কায় ভোট চেয়েছেন। আজ বৃহস্পতিবার যশোর...

ট্রাকে ধাক্কা দিয়ে ইঞ্জিন পড়ে ১১ ঘণ্টা রেল যোগাযোগ বন্ধ

যশোরের বেনাপোল রেল স্টেশন থেকে ছেড়ে যাওয়া আমদানিকৃত পণ্য বোঝাই মালবাহী ওয়াগনের ধাক্কায় দুমড়ে-মুচড়ে...

সাবেক স্বামীর সঙ্গে কথা বলাই কাল হলো রাজিয়ার

সাবেক স্বামীর সঙ্গে মোবাইল ফোনে কথা বলার কারণে স্ত্রী রাজিয়া খাতুনকে হত্যা করেন বর্তমান...