Friday, April 19, 2024
প্রচ্ছদকৃষিব্যস্ত সময় পার করছেন কুষ্টিয়ার গরুর খামারিরা

ব্যস্ত সময় পার করছেন কুষ্টিয়ার গরুর খামারিরা

Published on

আসন্ন কোরবানির ঈদ সামনে রেখে কুষ্টিয়ায় ব্যস্ত সময় পার করছেন গরু-মহিষ খামারিরা। প্রতিদিন সকাল থেকে গভীর রাত পর্যন্ত চলছে গরুর পরিচর্যা। তবে ভালো দিক হলো ক্ষতিকর ইনজেকশন ও ট্যাবলেট ব্যবহার না করে দেশীয় পদ্ধতিতে গরু মোটাতাজা করছেন খামারি ও কৃষক। ঈদে দেশীয় গরুর ব্যাপক চাহিদা থাকায় খামারের পাশাপাশি গরু মোটাতাজা করছেন স্থানীয় অনেক কৃষক। তবে দ্রব্যমূল্য বেড়ে যাওয়ায় এবং গতবার লাভ কিছুটা কম হাওয়ায় এবার খামারে গরু পালন কমেছে। যদিও এবারও গরু-মহিষের দাম তুলনামূলকভাবে কম থাকবে বলে মনে করছেন সংশ্লিষ্টরা।

জেলা প্রাণিসম্পদ অফিসের তথ্যমতে, কুষ্টিয়ার ছয়টি উপজেলায় ২০ হাজার ১১০টি খামার রয়েছে। এসব খামারে ৮০ হাজার ১৩৯টি গরু, ৬৪ হাজার ১৮২টি ছাগল এবং তিন হাজার ১২১টি ভেড়া মোটাতাজা করা হচ্ছে। এর পাশাপাশি স্থানীয়ভাবেও কৃষকরা কোরবানির উদ্দেশ্যে বিক্রির জন্য গরু-ছাগল পালন করছেন।

জানা যায়, সদর উপজেলায় চার হাজার ৪৮৩টি খামার রয়েছে। এখানে ১২ হাজার ৩৮৭টি গরু মোটাতাজা করা হচ্ছে। এছাড়া কুমারখালি উপজেলায় চার হাজার ৯৪টি খামারে ১৩ হাজার ২৭৬টি গরু, মিরপুর উপজেলায় দুই হাজার ৯৭২টি খামারে ১৪ হাজার ৯১টি গরু, খোকসা উপজেলায় তিন হাজার ১২৯টি খামারে ৯ হাজার ১৪৯টি গরু, ভেড়ামারা উপজেলায় ৯৯২টি খামারে দুই হাজার ৪৫৯টি গরু এবং দৌলতপুর উপজেলায় চার হাজার ৪৪০টি খামারে ১৪ হাজার ৭৯টি গরু মোটাতাজা করা হচ্ছে। তবে গত বছর কোরবানি উপলক্ষে কুষ্টিয়া অঞ্চলের ২০ হাজার ৬৮৬টি খামারে ৯২ হাজার ৭৪১টি গরু মোটাতাজা করা হয়েছিল।

মিরপুর উপজেলার ফুলবাড়িয়া গ্রামের গরু খামারি সোহেল মাহমুদ বলেন, এ এলাকায় বেশিরভাগ খামারি দেশীয় পদ্ধতিতে গরু মোটাতাজা করছেন। সম্পূর্ণ দেশীয় পদ্ধতিতে ঘাস-খড়ের পাশাপাশি খৈলগুঁড়া ও ভুসি খাওয়ানো হচ্ছে। তাছাড়া ঈদকে সামনে রেখে দেশীয় গরুর চাহিদা থাকায় খামারিদের পাশাপাশি অনেক কৃষক পরিবারে গরু মোটাতাজা করেছেন।

তিনি আরও আরও বলেন, গোখাদ্যের দাম বেড়ে যাওয়ায় বর্তমানে গরুতে লাভ কিছুটা কমে গেছে। গতবার চারটি গরু বিক্রি করে প্রায় ৫০ হাজার টাকা লাভ হয়েছিল। এ বছর কোরবানি উপলক্ষে সাতটি গরু পালন করছি। আশা করি এবারও ভালো দাম পাব।

সদর উপজেলার বটতৈল এলাকার কৃষক সলিম হোসেন জানান, গত বছর তিনটি গরুতে প্রায় ২০ হাজার টাকা লেকসান দিতে হয়েছে। গরু তিনটি উৎপাদনে প্রায় এক লাখ ৭০ হাজার টাকা খরচ হলেও বিক্রি করতে হয়েছে দেড় লাখ টাকায়। গত ঈদের শেষ মুহূর্তে গরুর দাম কমে যাওয়ায় এ লোকসান গুনতে হয়। তাই এ বছর কোনো গরু উৎপাদন করেননি। একই অভিযোগ উজান গ্রামের কৃষক রজব মণ্ডলের। তিনি জানান, বর্তমানে একটি গরু উৎপাদন করতে যে খরচ হয়, বিক্রি করলে সেই টাকা ওঠানো যায় না। কয়েক বছরে গরুর সব খাবারের দাম দ্বিগুণ হলেও গরুর দাম তেমন বাড়েনি। তাই এবার তার বাড়িতে কোনো গরু নেই।

সদর উপজেলার কাজী ফার্মসের মালিক কাজী শওকত জানান, গত ঈদে তার খামারে পশু ছিল ১৮০টি। এবার উৎপাদন কমে পশুর সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ১৪০টি। এর মধ্যে ছয়টি সাদা মহিষ এবং ৪০টির মতো ছোট ভুটানি গরু রয়েছে। বাকি সব দেশি গরু।

জেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা ডাক্তার মো. সিদ্দীকুর রহমান জানান, কোরবানির ঈদ সামনে রেখে প্রতিটি উপজেলায় আমাদের কর্মীরা কাজ করছেন। উপজেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তার নেতৃত্বে প্রতি উপজেলায় মেডিক্যাল টিম গঠন করা হয়েছে। উপজেলার গুরুত্বপূর্ণ দুটি হাটে এ মেডিক্যাল টিম কাজ করছে। পশুর রোগ প্রতিষেধক ভ্যাকসিন পর্যাপ্ত রয়েছে। খামারি ও কৃষকদের মাঝে চাহিদামতো তা ব্যবহার করা হবে। তিনি আরও জানান, কুষ্টিয়াএখন গরু মোটাজাতাকরণ ট্যাবলেট ব্যবহার করা হয় না। আমরা গ্রামের প্রত্যন্ত মানুষকে উদ্বুদ্ধ করতে সারা বছর প্রশিক্ষণ দিয়ে যাচ্ছি। সচেতনতা সৃষ্টির জন্য বিভিন্ন প্রচার-প্রচারণা ও লিফলেট বিলি করে আসছি।

সর্বশেষ

কুষ্টিয়ায় আর্জেন্টিনা-ব্রাজিল সমর্থকদের সংঘর্ষে আহত ৭

কুষ্টিয়া সদর উপজেলায় বিশ্বকাপ ফুটবলের ফাইনাল খেলা নিয়ে বাগ্‌বিতণ্ডার পর সংঘর্ষে জড়িয়ে অন্তত সাতজন...

কুষ্টিয়ায় শিক্ষার্থীকে শ্লীলতাহানি, বরখাস্ত প্রধান শিক্ষককে পুলিশে সোপর্দ

কুষ্টিয়ার কুমারখালীতে পঞ্চম শ্রেণীর এক শিক্ষার্থীকে শ্লীলতাহানির মামলায় বরখাস্ত প্রধান শিক্ষককে বৃহস্পতিবার (১৫ ডিসেম্বর)...

কুষ্টিয়ায় পৃথক সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ২

কুষ্টিয়ায় পৃথক সড়ক দুর্ঘটনায় একটি শিশুসহ দু’জনের মৃত্যু হয়েছে।   বৃহস্পতিবার (১৫ ডিসেম্বর) দুপুরের দিকে...

পাসপোর্ট সংশোধনে সরকারের নতুন নির্দেশনা

এনআইডির তথ্য অনুযায়ী পাসপোর্ট রি-ইস্যুর নির্দেশ স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের জাতীয় পরিচয়পত্রে (এনআইডি) দেওয়া তথ্য অনুযায়ী পাসপোর্ট...

আরও পড়ুন

কুষ্টিয়ায় ব্যবসায়ীর অতিরিক্ত কৃষি জমি যাচ্ছে সরকারের হাতে

কুষ্টিয়ার দৌলতপুরে নিয়ম বহির্ভূতভাবে কৃষি জমির মালিক থাকায় আইনের আওতায় নেয়া হয়েছে নুরুজ্জামান বিশ্বাস...

কচু চাষে কুষ্টিয়ার কৃষকদের মুখে হাসি

করোনা ভাইরাসের কারণে সবজি চাষিরা চিন্তিত থাকলেও আগাম জাতের কচু চাষ করে ভালো দাম...

কুষ্টিয়ার চরাঞ্চলে বাদাম চাষে সাফল্য পেলেও ফলন নিয়ে হতাশা চাষীদের

অনাবাদি পদ্মা চরে চিনা বাদাম চাষ করে সাফল্য পেয়েছেন কুষ্টিয়ার দৌলতপুরের চাষীরা। তবে প্রকৃতির...