Sunday, April 14, 2024
প্রচ্ছদবাংলাদেশঢাকা বিভাগদৌলতদিয়ায় চারটি ঘাট বন্ধ, মানুষের ভিড়

দৌলতদিয়ায় চারটি ঘাট বন্ধ, মানুষের ভিড়

Published on

পরিবারের সঙ্গে ঈদ কাটিয়ে কর্মস্থলে ফেরা শুরু করেছে দক্ষিণাঞ্চলের মানুষ। এসব মানুষের ঢল নেমেছে রাজবাড়ীর গোয়ালন্দ উপজেলার দৌলতদিয়া ঘাটে। কিন্তু এখানকার ছয়টির মধ্যে চারটি ঘাটই বন্ধ থাকায় যানবাহন ও মানুষের ব্যাপক ভিড় তৈরি হয়েছে। করোনার ঝুঁকি উপেক্ষা করে গাদাগাদি করে পার হচ্ছে মানুষ।

আজ বুধবার সকাল থেকেই দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের অন্যতম প্রবেশদ্বার দৌলতদিয়া ঘাটে মোটরসাইকেল ও ব্যক্তিগতসহ পণ্যবাহী গাড়ি ভিড়তে শুরু করে। বেলা বাড়ার সঙ্গে বাড়তে থাকে মানুষের চাপ। একপর্যায়ে দুপুরের পর থেকে ছোট গাড়ির প্রায় এক কিলোমিটার লম্বা সারি তৈরি হয়।

যশোর থেকে পরিবারের সদস্যদের নিয়ে ঢাকায় কর্মস্থলে যোগ দিতে যাচ্ছেন আনোয়ার হোসেন। তিনি বলেন, ‘ঘাটের ভিড় এড়াতে ব্যক্তিগত গাড়ি নিয়ে খুব সকালে রওনা হয়েছিলাম। ঘাটে পৌঁছে দুই ঘণ্টা ধরে লাইনে দাঁড়িয়ে আছি। আমার মতো শতাধিক ছোট গাড়ি এভাবে অপেক্ষা করছে।’

বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌপরিবহন করপোরেশন (বিআইডব্লিউটিসি) সূত্রে জানা যায়, দৌলতদিয়ায় ছয়টি ঘাট রয়েছে। এর মধ্যে গত বর্ষায় বিলীন হওয়ার পর থেকে ১ নম্বর ঘাট চালু হয়নি। ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ায় ৬ নম্বর ঘাটটিও গত বর্ষার পর থেকে বন্ধ। গতকাল মঙ্গলবার দিবাগত রাতে ভারী বৃষ্টিতে ৩ ও ৫ নম্বর ঘাটের র‍্যাম তলিয়ে গেছে। এতে এ দুটি ঘাটও বন্ধ হয়ে গেছে। ২ নম্বর ঘাট চালু থাকলেও দূরে হওয়ায় সেখানে ফেরি কম ভিড়ছে। এ অবস্থায় ৪ নম্বর ঘাট দিয়ে বেশির ভাগ যাত্রী ও গাড়ি ফেরিতে ওঠানামা করছে। এতে মানুষ সামাজিক দূরত্ব না মেনে ফেরিতে ওঠানামা করছে।

আজ সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত দেখা যায়, মাইক্রোবাস, মোটরসাইকেলসহ ব্যক্তিগত গাড়ি নিয়ে ঘাটে ছুটছে মানুষ। অনেকে ভাড়ায় ছোট গাড়িতে করে এসেছেন। তাঁরা গাদাগাদি করে ফেরিতে উঠছেন। ৫ নম্বর ঘাটের সোজায় সংযোগ সড়ক থাকায় এ পথে ছোট গাড়ির প্রায় এক কিলোমিটার লম্বা সারি তৈরি হয়।

কুষ্টিয়ার দৌলতপুর থেকে ঢাকায় যাচ্ছিলেন বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তা আশিকুর রহমান। তিনি বলেন, ‘জীবনের তাগিদে ঝুঁকি মাথায় নিয়ে ঢাকায় যেতে হচ্ছে। কাল বৃহস্পতিবার থেকে অফিস খোলা। তাই আজকে সকালে রওনা হয়েছি। ঘাটে এসে প্রচণ্ড ভিড় দেখে তো মাথা খারাপ হয়ে যাচ্ছে।’

ঢাকা থেকে যশোরে গ্রামের বাড়িতে স্ত্রী-সন্তান নিয়ে ফিরছিলেন নুর হোসেন। তিনি বলেন, ‘ঈদের আগে ফেরিঘাটে মানুষের ভিড় দেখে আসিনি। তখন সিদ্ধান্ত নিয়েছিলাম ঈদের পর যাব। কিন্তু ঈদ পার হতে না হতেই ফের ভিড় শুরু হয়েছে। সকালে রওনা দিয়ে দুপুর বারোটার দিকে মানিকগঞ্জের পাটুরিয়া ঘাটে আসি। সেখানে ভিড় সামলে ছোট ফেরিতে চড়ে নদী পাড়ি দিতে হয়েছে।’

এ ব্যাপারে জানতে চাইলে বিআইডব্লিউটিসির দৌলতদিয়া কার্যালয়ের সহকারী ব্যবস্থাপক মাহাবুব আলী সরদার বলেন, ৫ নম্বর ঘাটের র‍্যাম পাশে স্থানান্তর করা হচ্ছে। বিকেল নাগাদ সেটি চালু করা যাবে। ৩ নম্বর ঘাটটি হয়তো কাল স্থানান্তরের কাজ শুরু হবে। এখন ৪ নম্বর ঘাট দিয়ে যাত্রী ও যানবাহন পারাপার হচ্ছে। এ জন্য ৬টি ফেরি চালু রয়েছে। ঘাটস্বল্পতার কারণে ফেরি বাড়ানো যাচ্ছে না।

দৌলতদিয়া ফেরিঘাটে গিয়ে দেখা যায়, বুধবার বেলা বাড়ার সাথে সাথে দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া নৌপথে ছিল কর্মমুখী মানুষের ভিড়। গণপরিবহন বন্ধ থাকলেও জীবিকার তাগিদে দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের হাজার হাজার শ্রমজীবী মানুষ মাইক্রোবাস, প্রাইভেটকার, ব্যাটারিচালিত অটোবাইক, মোটরসাইকেল ও মাহেন্দ্রযোগে অতিরিক্ত ভাড়া দিয়ে দৌলতদিয়া ঘাটে এসে নদী পার হয়ে ঢাকাসহ আশপাশের বিভিন্ন জেলায় কর্মস্থলে যাচ্ছেন। পাশাপাশি ঢাকা থেকেও আসছে অসংখ্য যাত্রী। করোনা দুর্যোগকালে যাওয়া-আসার এই প্রতিযোগিতায় সামাজিক দূরত্ব মানা তো দুরের কথা বরং গাদাগাদি করে ফেরিতে উঠে কর্মস্থলে যাওয়াই যেন প্রতিযোগিতা।

মাগুরা থেকে আসা সাভারের একটি পোশাক কারখানায় কর্মরত আল আমিন, রুবেল, শাহানাজসহ যাত্রীরা জানান, পরিবারের সাথে ঈদ করে ঢাকায় ফিরছি। পথিমধ্যে যানবাহন বদলে ছোট গাড়িতে অতিরিক্ত ভাড়া দিয়ে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে কর্মস্থলে যাওয়ার উদ্দেশ্যে ঘাটে এসে পৌঁছেছি। এমনিতেই করোনা সংক্রমণের ভয় রয়েছে তবুও পরিবারের সাথে ঈদ উদযাপন করতে পেরে ভালো লেগেছে।

বিআইডব্লিউটিএ সূত্র জানায়, বুধবার ভোরের আলো ফুটতে না ফুটতেই লঞ্চ ও স্পীডবোট বন্ধ থাকায় ফেরিতে যাত্রীদের ভিড় দেখা গেছে। বেলা বাড়ার সাথে সাথে এই কাঁঠালিয়া-মিশুলিয়া নৌরুটে যাত্রীদের ভিড় বাড়তে থাকে। আজ ভোরে ঝড় বৃষ্টির কারণে ১ ঘণ্টা ফেরি চলাচল বন্ধ রাখে ঘাট কর্তৃপক্ষ। এদিকে পদ্মা নদীর পানি বৃদ্ধি পাওয়ায় ঘাটের পন্টুনের র‌্যাম ডুবে যাওয়ায় দুর্ভোগে পড়েছে যাত্রীরা।

ঘাটের একাধিক সূত্রে জানা যায়, বেলা বাড়ার সাথে সাথে কাঁঠালবাড়ি-শিমুলীয়া নৌ-রুট হয়ে দক্ষিণাঞ্চলের যাত্রীদের ভিড় বাড়তে শুরু করে। বরিশাল, খুলনাসহ দক্ষিণাঞ্চলের বিভিন্ন জেলা থেকে গণপরিবহন বন্ধ থাকার কারণে বিভিন্ন ছোট যানবাহনে করে যাত্রীরা কাঁঠালবাড়ি ঘাটে আসছে। তবে ঘাট পর্যন্ত আসতে যাত্রীদের গুণতে হচ্ছে দেড় থেকে দ্বিগুন ভাড়া। এই নৌ-রুটে লঞ্চ ও স্পীডবোট বন্ধ থাকায় ফেরিগুলো যানবাহন পারাপারের পাশাপাশি যাত্রী পারাপারে হিমশিম খাচ্ছে।

সর্বশেষ

কুষ্টিয়ায় আর্জেন্টিনা-ব্রাজিল সমর্থকদের সংঘর্ষে আহত ৭

কুষ্টিয়া সদর উপজেলায় বিশ্বকাপ ফুটবলের ফাইনাল খেলা নিয়ে বাগ্‌বিতণ্ডার পর সংঘর্ষে জড়িয়ে অন্তত সাতজন...

কুষ্টিয়ায় শিক্ষার্থীকে শ্লীলতাহানি, বরখাস্ত প্রধান শিক্ষককে পুলিশে সোপর্দ

কুষ্টিয়ার কুমারখালীতে পঞ্চম শ্রেণীর এক শিক্ষার্থীকে শ্লীলতাহানির মামলায় বরখাস্ত প্রধান শিক্ষককে বৃহস্পতিবার (১৫ ডিসেম্বর)...

কুষ্টিয়ায় পৃথক সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ২

কুষ্টিয়ায় পৃথক সড়ক দুর্ঘটনায় একটি শিশুসহ দু’জনের মৃত্যু হয়েছে।   বৃহস্পতিবার (১৫ ডিসেম্বর) দুপুরের দিকে...

পাসপোর্ট সংশোধনে সরকারের নতুন নির্দেশনা

এনআইডির তথ্য অনুযায়ী পাসপোর্ট রি-ইস্যুর নির্দেশ স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের জাতীয় পরিচয়পত্রে (এনআইডি) দেওয়া তথ্য অনুযায়ী পাসপোর্ট...

আরও পড়ুন

২৭০ বছরে প্রথম, শোলাকিয়া ময়দানে এমন নির্জনতা আগে দেখেনি কেউ

এ যেন অবিশ্বাস্যকর! কেউ কি কখনো ভেবেছে দুইশো বছরের ইতিহাসে প্রথমবারের মতো মুসল্লি শূন্য থাকবে।...

দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া নৌরুটে চালু দুই ফেরিতে মানুষের ঢল

করোনা ভাইরাস সংক্রমন রোধে দেশের ব্যস্ততম দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া নৌরুটে মাত্র দু’টি ফেরি দিয়ে জরুরী যানবাহন...

গুজবে লবণ কেনার হিড়িক, মুহূর্তেই গোডাউনশূন্য

‘২০০ টাকা হবে লবণের কেজি’ এমন গুজাবে কোটালীপাড়া উপজেলার ঘাঘর বাজারে লবণ কেনার হিড়িক...