Friday, February 23, 2024
প্রচ্ছদআইন আদালতগত ছয় মাসেই কুষ্টিয়ায় বিচারের অপেক্ষায় সাড়ে ছয় শতাধিক মাদক মামলা

গত ছয় মাসেই কুষ্টিয়ায় বিচারের অপেক্ষায় সাড়ে ছয় শতাধিক মাদক মামলা

Published on

খালাস পেয়ে বাইরে আছে ৭ শতাধিক মাদক ব্যবসায়ী, মাদক মামলার বিচারে বিশেষ ট্রাইব্যুনাল গঠনে ধীরগতি

২০১৮ সালে নতুন মাদক আইনের পর যেসব মাদকের মামলা হয়েছে সেগুলো  বিশেষ ট্রাইব্যুনালে বিচারের জন্য নির্দেশনা আছে। তবে সারাদেশের মত কুষ্টিয়াতে মাদক মামলা নি¯ত্তর জন্য বিশেষ ট্রাইব্যুনাল গঠন ও বিচারক নিয়োগ না হওয়ায় নতুন দায়ের হওয়া মামলাগুলোর ভবিষ্যৎ নিয়ে শঙ্কা দেখা দিয়েছে। শুধুমাত্র চলতি বছরের জানুয়ারি মাস থেকে শুরু করে গত ১৫ জুলাই পর্যন্ত  ৬৬৪টি মামলা রুজু হয়েছে। এসব মামলায় কারাগারে থাকা ৭১৮ আসামী জামিন পেয়ে বাইরে আছে। ইতিমধ্যে পুলিশ ৫২০টি মামলার চুড়ান্ত প্রতিবেদন দাখিল করেছে আদালতে।

দ্রুত বিচার কার্য শুরু না হওয়ায় বাইরে থাকা আসামীরা নতুন করে ফের মাদক কারবারে জড়িয়ে পড়ার পাশাপাশি সাজার ভয়ে গা ঢাকা দিতে পারে বলে আশঙ্কা করছেন আইন শৃংখলা বাহিনী ও সচেতন নাগরিক সমাজ। গা ঢাকা দিলে নতুন করে আদালত ওয়ারেন্ট জারি করলে তাদের গ্রেফতারে পুলিশকে বেগ পেতে হতে পারে বলেও জানান সরকারি আইনজাবীরা।

আদালত সূত্রে জানা গেছে, ১৯৯০ সালের আইনে দায়ের হওয়া মাদক মামলা দ্রুত নিষ্পত্তি করার উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। গত কয়েক মাসেই চাঞ্চল্যকর বেশ কিছু মাদক মামলার রায় হয়েছে। এতে আসামীদের যাবজ্জীবন কারাদন্ডসহ বিভিন্ন মেয়াদে সাজা হয়েছে। প্রতি সপ্তাহেই মাদক মামলার রায় হচ্ছে। এখন যে মামলাগুলোর রায় হচ্ছে সেগুলো ২০১৮ সালের নতুন আইন হওয়ার আগে।

এসব মামলায় বিচার কাজ চালাতে কোন সমস্যা হচ্ছে না। যেসব মামলা আছে সেগুলো দ্রুত নিস্পত্তি করার জন্য আদালত, পুলিশ বিভাগ ও জেলা প্রশাসন যৌথভাবে কাজ করছে। ইতিমধ্যে জেলা পুলিশের পক্ষ থেকে আগের দায়ের হওয়া মামলায় স্বাক্ষী হাজিরা বাড়ানো হয়েছে। যেসব মামলার অভিযোগপত্র আটকে ছিল সেগুলো দেয়া হয়েছে। এতে করে বিচারকাজে সার্বিকভাবে গতি বেড়েছে।

সম্প্রতি সময়ে প্রধান বিচারপতি কুষ্টিয়া সফরে এসে মামলা নিষ্পত্তির সংখ্যা বাড়ায় এখানকার বিচারকসহ পুলিশ প্রশাসনকে ধন্যবাদ জানান। অন্য যে কোন জেলার থেকে কুষ্টিয়া মামলা দায়েরের থেকে নিষ্পত্তির সংখ্যা বেশি বলে জানানো হয়। বিচারকাজে আরো গতি আনার নির্দেশ দেন প্রধান বিচারপ্রতি।

এদিকে নতুন আইনে দায়ের হওয়া মামলা নিয়ে বিপাকে পড়েছে আদালত ও পুলিশ বিভাগ। গত ৬ মাসেই দায়ের হওয়া বিপুল পরিমান মামলা পড়ে আছে। ৬৬৪টি দায়ের হওয়া মামলার ৫২০টির চুড়ান্ত অভিযোগপত্র আদালতে দেয়া হয়েছে। ১৪১টি মামলা তদন্তধীন আছে। এসব মামলায় গ্রেফতার ৭১৮জন আসামী খালাস পেয়ে বাইরে আছে। ১৩৯জন কারাগারে আছে বর্তমানে। আর ৩২জন পলাতক।

আদালত সুত্র জানিয়েছে, নতুন আইনে দায়ের হওয়া সব মামলার বিচার কাজ শুরু হবে  বিশেষ ট্রাইব্যুনালে। তবে এখন পর্যন্ত ট্রাইব্যুনাল গঠন না হওয়ায় আদালতে চুড়ান্ত অভিযোগপত্র দেয়া হলে মামলার কাজ শুরু করা যাচ্ছে না। এতে মামলার জট বাড়ছে। এখনই প্রায় ৭ শতাধিক মামলার স্তুপ জমে গেছে। দ্রুত মামলার নিষ্পত্তির উদ্যোগ না নিলে এ সংখ্যা আরো বাড়বে। এতে বিচারককে সমস্যায় পড়তে হতে পারে।

কুষ্টিয়ার পুলিশ সুপার এসএম তানভীর আরাফাত বলেন,‘ পুরাতন আইনে দায়ের হওয়া মামলার রায় হচ্ছে প্রতিনিয়ত। গত ৬ মাসে যেসব মামলা থানায় দায়ের হয়েছে তার বেশির ভাগেরই চুড়ান্ত অভিযোগপত্র দেয়া হয়েছে। আমাদের সব অফিসার নির্দিষ্ট সময়ের আগে অভিযোগপত্র দিচ্ছে। তবে ট্রাইব্যুনালের কারনে মামলার বিচারকাজ শুরু করা যাচ্ছে না। পুলিশের পক্ষ থেকে মামলা দ্রুত শেষ করতে সব ধরনের সহযোগিতা আদালতকে দেয়া হচ্ছে। এখন দ্রুত এসব মামলার বিচারকাজ শুরু না ভোগান্তি বাড়তে পারে।’

কুষ্টিয়া জজকোর্টের পাবলিক প্রসিকিউটর (পিপি) অ্যাডভোকেট অনুপ কুমার নন্দী বলেন,‘ ২০১৮ সালের নতুন মাদক আইনের পর যেসব মামলা দায়ের হয়েছে সেইসব মামলার বিচারকাজ বন্ধ আছে। আদালতে অনেক মামলার অভিযোগপত্র দেয়া হয়েছে। স্বারষ্ট মন্ত্রণালয় থেকে মাদক মামলা নিস্পত্তি করার জন্য প্রতি জেলায় বিশেষ ট্রাইব্যুনাল গঠনের পক্রিয়া চলছে। ট্রাইব্যুনাল গঠনের পর আইন মন্ত্রনালয় থেকে বিচারক নিয়োগ দেয়া হবে। তবে দ্রুত ট্রাইব্যুনাল হওয়ার দরকার। নাহলে মামলা জট বাড়বে।

তিনি বলেন, পুরাতন আইনে দায়ের হওয়া কোন মামলা পেন্ডিং নেই। সব মামলার বিচারকাজ চলছে। দ্রুত এসব মাললার রায় হয়ে যাবে বলে আশা করছি।’

সচেতন নাগরিক কমিটির সাবেক সভাপতি রফিকুল ইসলাম টুকু বলেন,‘ মামলার বিচার কাজ দেরি হলে মাদক ব্যবসায়ীদের সুবিধা। তারা এখন জামিনে আছেন। এ সুযোগে আবার নতুন বরে ব্যবসায় জড়িয়ে পড়তে পারে। আবার সাজা হওয়ার হওয়ার ভয়ে পালিয়ে যেতে পারে। তাই দেরি না করে দ্রুত এসব মামলা শেষ করতে হবে। যাতে ভয়ে কেউ মাদক কারবারে না জড়ায়। মামলার বিচারকাজ দেরি হওয়ার কারনেই অনেকে জড়িয়ে পড়ে এসব কাজে। তাই বিশেষ ট্রাইব্যুনাল গঠন দ্রুত হলে সবার জন্য ভাল হয়।’

সর্বশেষ

কুষ্টিয়ায় আর্জেন্টিনা-ব্রাজিল সমর্থকদের সংঘর্ষে আহত ৭

কুষ্টিয়া সদর উপজেলায় বিশ্বকাপ ফুটবলের ফাইনাল খেলা নিয়ে বাগ্‌বিতণ্ডার পর সংঘর্ষে জড়িয়ে অন্তত সাতজন...

কুষ্টিয়ায় শিক্ষার্থীকে শ্লীলতাহানি, বরখাস্ত প্রধান শিক্ষককে পুলিশে সোপর্দ

কুষ্টিয়ার কুমারখালীতে পঞ্চম শ্রেণীর এক শিক্ষার্থীকে শ্লীলতাহানির মামলায় বরখাস্ত প্রধান শিক্ষককে বৃহস্পতিবার (১৫ ডিসেম্বর)...

কুষ্টিয়ায় পৃথক সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ২

কুষ্টিয়ায় পৃথক সড়ক দুর্ঘটনায় একটি শিশুসহ দু’জনের মৃত্যু হয়েছে।   বৃহস্পতিবার (১৫ ডিসেম্বর) দুপুরের দিকে...

পাসপোর্ট সংশোধনে সরকারের নতুন নির্দেশনা

এনআইডির তথ্য অনুযায়ী পাসপোর্ট রি-ইস্যুর নির্দেশ স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের জাতীয় পরিচয়পত্রে (এনআইডি) দেওয়া তথ্য অনুযায়ী পাসপোর্ট...

আরও পড়ুন

কুষ্টিয়ায় স্বামী-স্ত্রী পরিচয়ে হোটেলে, কলেজছাত্রীর মৃত্যুর পর যুবক আটক

কুষ্টিয়ায় একটি আবাসিক হোটেলে শয্যা বিশ্বাস (১৮) নামে এক কলেজছাত্রীর মৃত্যু হয়েছে। এ ঘটনায়...

কুষ্টিয়ায় হত্যার দায়ে ৬ ডাকাতের যাবজ্জীবন

কুষ্টিয়ার দৌলতপুরে ডাকাতি করার সময় শাজাহান আলী নামের এক বাড়ির মালিককে চাইনিজ কুড়াল দিয়ে...

ব্রাজিলের পতাকা টাঙাতে গিয়ে কুষ্টিয়ার মাদ্রাসা ছাত্রের মৃত্যু

কুষ্টিয়ার কুমারখালীতে সুপারি গাছে ব্রাজিলের পতাকা টাঙাতে গিয়ে বিদ্যুতায়িত হয়ে মিঠু শেখ (১৪) নামে...