Monday, June 24, 2024
প্রচ্ছদখুলনা বিভাগকুষ্টিয়াকুষ্টিয়ায় স্কুল ছাত্রী আত্মহত্যার ঘটনায় পারভেজ গ্রেফতার, বাঁকী মা ছেলে পলাতক

কুষ্টিয়ায় স্কুল ছাত্রী আত্মহত্যার ঘটনায় পারভেজ গ্রেফতার, বাঁকী মা ছেলে পলাতক

Published on

কুষ্টিয়ার মিরপুরের কাতলামারী এলাকার বকাটে ছেলেদের অত্যাচারে হাত থেকে নিজেকে রক্ষা করতে আত্মহত্যার পথ বেঁছে নিয়েছে মুন্নি (১৫) নামের এক ৯ম শ্রেণির স্কুল শিক্ষার্থী। আত্মহত্যা করার পূর্বে একটি চিঠির মাধ্যমে বাবা-মায়ের কাছে শেষ বারের মতো ক্ষমা চাই এবং তার আত্মহত্যার কারন লিখে যায় সে। এ ঘটনায় ঐ স্কুল ছাত্রের পিতা বাদী হয়ে মিরপুর থানায় একটি মামলা দায়ের করে।

জানা যায়, গত বৃহস্পতিবার (২৮ মার্চ) দুপুর আড়াইটার দিকে সে গলাই ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করে। পরদিন শুক্রবার ময়নাতদন্ত শেষে তাকে দাফন করা হয়। মুন্নি খাতুন মিরপুর উপজেলার সদরপুর ইউনিয়নের হেকমত আলী ভাষার মেয়ে এবং কেবিএইচ মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ৯ম শ্রেণির শিক্ষার্থী। নিহতের চাচা হাসেম আলী জানান, শুক্রবার আমার বড় ভাই এর মেয়ের বিয়ে। এজন্য আমার সেজো ভাই এর মেয়ে মুন্নি এবং আমার মেয়ে আমলা বাজারে ফুল কিনতে যায়। এসময় আমলা বাজার থেকে এলাকার বকাটে জয়নাল প্রেমের প্রলোভন দেখিয়ে আমলা ভিত্তি বীজ আলু উৎপাদন খামারে নিয়ে যায়। পরে স্থানীয়দের সাথে বিবাদে জড়িয়ে পড়ে। এসময় তাকে আমলা পুলিশ ক্যাম্পের ইনচার্জ এএসআই আশরাফ মুন্নিকে উদ্ধার করে স্থানীয় মহিলা ইউপি সদস্য রেজেলা খাতুনের কাছে হস্তান্তর করে। এবং আমলা থেকে তার নিজ বাড়ী কাতলামারীতে আসার সময় পথিমধ্যে অটো গাড়ির গতিরোধ করে কাতলামারী এলাকার আরোবিয়ার ছেলে জয়নাল, আনছের আলীর ছেলে মিঠুন, রেজন আলীর ছেলে আঙ্গুর, নাসের রাজের ছেলে রাজু এবং আফতার আলীর ছেলে পারভেজ। তারা জোর করে মুন্নিকে পাশর্^বর্তী ছাদিমনের বাড়ীতে নিয়ে যায়। এর পরেই মুন্নি বাড়ীতে এসে আত্মহত্যা করে। হাসেম আলীর দাবী, জয়নাল ইতিপূর্বেও মুন্নিকে উত্যক্ত করতো। যা অনেকবার বাড়ীতেও বলেছে মুন্নি।

শেষ চিঠিতে মুন্নি লিখেছে “আব্বু আমাকে তুমি ক্ষমা করে দিও। আমি জানিনা কী করে কী হয়ে গেল। আমি তোমার মাননসম্মান বাঁচাতে পারলাম। আর আমি কোনো ইচ্ছা করে করিনি এই কাজ আমাকে জোর করে করানো হয়েছে। আর জয়নাল এমন কিছু করিনি। তোমারা সবাই মনে করছ ও আমার সাথে কিছু করছে। কিন্তু ও শুধু আমাকে জোর করে নিয়ে গেছে। আর তোমার মানসম্মান ডোবালো। রাজ পাড়ার মিঠন, অঙ্গর এর তোমার মেয়ের ক্ষতি করল। আমি যদি মরে থাকি তাহলে তুমি মনে করবা রাজ পাড়ার ছেলেদের জন্যই আমি মারা গিয়েছি। আর মা তুমি কষ্ট দিয়ো আমার কষ্ট শেষ করতে পারবে না। ভালো থেকো সবাই। -ইতি তোমার মেয়ে মুন্নি।

এ ব্যপারে মিরপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবুল কালাম জানান, এ ঘটনায় মঙ্গলবার উপজেলার কাতলামারী রাজপাড়া গ্রামের আনছের আলীর ছেলে মিঠুন (২২), নাসের রাজের ছেলে রাজু (২২) এবং রেজন আলীর ছেলে আঙ্গুর (২৫)। পরে বুধবার দিবাগত রাতে আফতার আলীর ছেলে পারভেজ (২৩) কে আটক করা হয়। এছাড়া বাঁকী আসামী হাশেম আলীর ছেলে জয়নাল ও জয়নালের মা স্ত্রী আরোবিয়া খাতুনকে আটকের জন্য অভিযান অব্যহত রয়েছে।

সর্বশেষ

কুষ্টিয়ায় আর্জেন্টিনা-ব্রাজিল সমর্থকদের সংঘর্ষে আহত ৭

কুষ্টিয়া সদর উপজেলায় বিশ্বকাপ ফুটবলের ফাইনাল খেলা নিয়ে বাগ্‌বিতণ্ডার পর সংঘর্ষে জড়িয়ে অন্তত সাতজন...

কুষ্টিয়ায় শিক্ষার্থীকে শ্লীলতাহানি, বরখাস্ত প্রধান শিক্ষককে পুলিশে সোপর্দ

কুষ্টিয়ার কুমারখালীতে পঞ্চম শ্রেণীর এক শিক্ষার্থীকে শ্লীলতাহানির মামলায় বরখাস্ত প্রধান শিক্ষককে বৃহস্পতিবার (১৫ ডিসেম্বর)...

কুষ্টিয়ায় পৃথক সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ২

কুষ্টিয়ায় পৃথক সড়ক দুর্ঘটনায় একটি শিশুসহ দু’জনের মৃত্যু হয়েছে।   বৃহস্পতিবার (১৫ ডিসেম্বর) দুপুরের দিকে...

পাসপোর্ট সংশোধনে সরকারের নতুন নির্দেশনা

এনআইডির তথ্য অনুযায়ী পাসপোর্ট রি-ইস্যুর নির্দেশ স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের জাতীয় পরিচয়পত্রে (এনআইডি) দেওয়া তথ্য অনুযায়ী পাসপোর্ট...

আরও পড়ুন

কুষ্টিয়ায় স্বামী-স্ত্রী পরিচয়ে হোটেলে, কলেজছাত্রীর মৃত্যুর পর যুবক আটক

কুষ্টিয়ায় একটি আবাসিক হোটেলে শয্যা বিশ্বাস (১৮) নামে এক কলেজছাত্রীর মৃত্যু হয়েছে। এ ঘটনায়...

টিউশনি করে গোল্ডেন এ প্লাস পেলেন কুষ্টিয়ার জমজ দুই বোন

সংসারের একমাত্র উপার্জনক্ষম বাবা দীর্ঘদিন ধরে মানসিক রোগী। টিউশনি করে কোন রকমে সংসার চালাচ্ছেন...

ব্রাজিলের পতাকা টাঙাতে গিয়ে কুষ্টিয়ার মাদ্রাসা ছাত্রের মৃত্যু

কুষ্টিয়ার কুমারখালীতে সুপারি গাছে ব্রাজিলের পতাকা টাঙাতে গিয়ে বিদ্যুতায়িত হয়ে মিঠু শেখ (১৪) নামে...