Tuesday, July 23, 2024
প্রচ্ছদকুষ্টিয়াঅপরাধকুষ্টিয়ায় প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে দূর্নীতি ও নিয়োগ বানিজ্যের অভিযোগ

কুষ্টিয়ায় প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে দূর্নীতি ও নিয়োগ বানিজ্যের অভিযোগ

Published on

দুইবার কারন দর্শানোর নোটিশ প্রদান 

কুষ্টিয়া স্বস্তিপুর মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে দূর্নীতি ও নিয়োগ বানিজ্যের অভিযোগ

কুষ্টিয়া সদর উপজেলার ভাদালিয়া স্বস্তিপুর ঐতিহ্যবাহী মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক রুহুল আমীনের বিরুদ্ধে এলাকাবাসী ও ম্যানেজিং কমিটি নানা দূর্নীতির অভিযোগ তুলেছেন। ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি খোরশেদ আলমের স্বাক্ষর জাল করে অফিস সহকারী কাম কম্পিউটার অপারেটর পদে আলমগীর হোসেনকে নিয়োগ প্রদান করে। এছাড়াও তার বিরুদ্ধে ছাত্র-ছাত্রীদের কাছ থেকে অতিরিক্ত অর্থ আদায়ের অভিযোগ সহ নানা দূর্নীতির অভিযোগ রয়েছে।

এই ব্যাপারে ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি প্রধান শিক্ষক রুহুল আমীনের বিরুদ্ধে কুষ্টিয়া জেলা শিক্ষা অফিসার বরাবর লিখিত অভিযোগ প্রেরণ করেন। পরবর্তীতে এই দূর্নীতির দায়ে অভিযুক্ত প্রধান শিক্ষক রুহুল আমীনের বিরুদ্ধে ম্যানেজিং কমিটির রেজুলেশনের মাধ্যমে পর পর দুইটি কারন দর্শানোর নোটিশ প্রদান করেন। এই ব্যাপারে ম্যানেজিং কমিটির খোরশেদ আলম জানান, প্রধান শিক্ষক রুহুল আমীন কারন দর্শানোর নোটিশের কোন জবাব দেয়নি।

উল্লেখ্য, জানা যায়, গত ১৩ ই মার্চ ২০১৯ সালে দুপুর আড়াইটায় কুষ্টিয়া জিলা স্কুলে অফিস সহকারী কাম কম্পিউটার অপারেটর নিয়োগ পরীক্ষা হয়। পরিক্ষায় অংশগ্রহণ করেন ৭ জন। এর মধ্যে প্রধান শিক্ষক আলমগীর হোসেনকে ১ম ঘোষণা দেন। কিন্তু ম্যানেজিং কমিটির সদস্যদের দাবি প্রধান শিক্ষক ৩ লক্ষ টাকার বিনিময়ে আলমগীর হোসেনকে ১ম বানিয়ে নিয়োগ দেয়ার চেষ্টা করে যাচ্ছে। এদিকে রেজাল্ট সিটে ম্যানেজিং কমিটি ও নিয়োগ বোর্ডের সভাপতি এবং সদস্য কারো স্বাক্ষর নেই।

কিন্তু রেজুলেশন খাতায় জালিয়াতির অভিযোগে করেছেন ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি খোরশেদ আলম। স্বস্তিপুর মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের সভাপতি খোরশেদ আলম জানান, নিয়োগ পরীক্ষার জন্য দুপুর ১ টার সময় একটি রেজুলেশন করা হয় সেই রেজুলেশনে পরিক্ষার অনুমতি জন্য। কিন্তু প্রধান শিক্ষক রুহুল আমিন জালিয়াতি করে রেজুলেশনে রেজাল্ট উলে¬খ করে আলমগীর হোসেনকে পাশ করিয়ে দেয়। আমি লিখিত ও মৌখিক পরীক্ষার সময় উপস্থিত না থাকার সুযোগ নিয়েছে প্রধান শিক্ষক রুহুল আমীন। এই জন্য আমি রেজাল্ট সিটে সাক্ষর করিনি। পরে জেনেছি প্রধান শিক্ষক মোটা অংকের টাকার বিনিময়ে আলমগীর হোসেনকে ১ম বানিয়ে দিয়েছে। আলমগীর হোসেন নিয়োগ পরীক্ষায় প্রথম স্থান অধিকার করেছে এই খবরটি আমাকে দেয়া হয় দুদিন পরে। তিনি দাবি করেন স্বচ্ছ প্রক্রিয়ায় আবারো নিয়োগ পরীক্ষার জন্য।একটি বিশ্বস্ত সূত্রে জানা যায়, ইতিপূর্বে প্রধান শিক্ষক আতিকুর রহমানকে নিয়োগ দেয়ার জন্য উৎকোচ গ্রহণ করে। 

কিন্তু পরবর্তীতে তার সাথে বনিবনা না হওয়ায় আতিকুর রহমানকেও নিয়োগ দেয়া হয় না। সূত্রটি আরো জানান, আলমগীর হোসেনকে প্রথম করতেই আগের দিন রাতেই প্রশ্ন তুলে দেন প্রধান শিক্ষক।

এছাড়াও উল্লেখ্য, শিক্ষা প্রতিষ্ঠান শিক্ষার মান উন্নয়নে সরকার বিভিন্ন কার্যক্রম হাতে নিলেও কিছু দুর্নীতিবাজ শিক্ষকের কারণে সেসব উদ্যোগ ভেস্তে যেতে বসেছে। নানা অনিয়ম দুর্নীতি আর স্বেচ্ছাচারিতায় ডুবতে বসেছে শিক্ষার মান। এমনই কিছু অভিযোগ উঠেছে কুষ্টিয়া সদর উপজেলার ভাদালিয়া স্বস্তিপুর মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক রুহুল আমিনের বিরুদ্ধে। রেজিস্ট্রেশন বাবদ অতিরিক্ত অর্থ আদায়, নিয়োগ বাণিজ্য, অতিরিক্ত ফ্রি আদায়, শিক্ষকদের সাথে দুর্ব্যবহার সহ নানা অভিযোগ উঠেছে ঐ প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে। এমনকি ছাত্র-ছাত্রীদের কাছ থেকে প্রাপ্ত টাকার কোন রশিদ প্রদান করেন না এই শিক্ষক। ম্যানেজিং কমিটির সিদ্ধান্ত ছাড়াই নিজ ইচ্ছায় শিক্ষা প্রতিষ্ঠান চালানোর অভিযোগ রয়েছে তার বিরুদ্ধে।

সে বিভিন্ন নীতিমালা কে তোয়াক্কা না করে মনগড়া নিয়মে চালান বিদ্যালয়। তার অনিয়ম ও দুর্নীতির বিষয়ে জানতে পেরে ম্যানেজিং কমিটির সদস্যরা বিদ্যালয়ে উপস্থিত হলে সে সময় কৌশলে স্কুল ছেড়ে চলে যান। গতকাল সরেজমিনে স্বস্তিপুর মাধ্যমিক বিদ্যালয় গেলে এমনটি অভিযোগ করেন ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি ও অন্যান্য সদস্যবৃন্দ এবং ছাত্র-ছাত্রীরা। সরোজমিনে স্কুলে গিয়ে অষ্টম শ্রেণীর ছাত্র ছাত্রীর সাথে কথা বললে, তারা জানান প্রধান শিক্ষক রুহুল আমিন স্যার অ্যাসেম্বলিতে আমাদেরকে ১৫০ টাকা করে রেজিস্ট্রেশন ফি জমা দিতে বলেন। আমরা স্যারের নির্দেশমতো টাকা পরিশোধ করলেও সেই টাকার কোন রশিদ স্যার আমাদেরকে দেয়নি। এদিকে আমাদের কাছ থেকে নেয়ার কথা ছিল ৭৫ টাকা। এই অতিরিক্ত ৭৫ টাকা নেয়ার বিষয়টি আমরা লিখিতভাবে ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি কাছে জানিয়েছি।

নবম শ্রেণীর শিক্ষার্থীরা জানান, তাদের নিকট থেকে রেজিস্ট্রেশন ফি বাবদ নেয়া হয়েছে ২৫০ টাকা করে। সেই টাকার কোন রশিদ দেওয়া হয়নি। পরবর্তীতে আমরা জানতে পারি যে বোর্ড নির্ধারিত ফি ১৬৮ টাকা। এই অতিরিক্ত টাকা নেয়ার বিষয়ে আমরা ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি বরাবর লিখিতভাবে অভিযোগ জানিয়েছি।

ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি খোরশেদ আলম এর সাথে কথা বললে তিনি জানান, অতিরিক্ত টাকা আদায়ের বিষয়ে আমার কাছে লিখিতভাবে অভিযোগ জানায় বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা। আমি এই অভিযোগের সত্যতা পেয়েছি প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের নিকট ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য আবেদন করব।

এসব অভিযোগের বিষয়ে প্রধান শিক্ষক রুহুল আমিনের মুঠোফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, আমি এখন ব্যস্ত আছি পরে কথা বলবো বলে ফোন কেটে দেন। এ

দিকে কুষ্টিয়া সদর উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার ফজলুল হকের মুঠোফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, টাকার রশিদ না দিয়ে শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে অতিরিক্ত টাকা নেয়া হয়েছে এ ধরনের কোনো অভিযোগ আমি পাইনি। এ দিকে প্রধান শিক্ষকের দুর্নীতির ঘটনায় জেলা দুদুকের দৃষ্টি আকর্ষণ করেছে এলাকাবাসী।

সর্বশেষ

কুষ্টিয়ায় আর্জেন্টিনা-ব্রাজিল সমর্থকদের সংঘর্ষে আহত ৭

কুষ্টিয়া সদর উপজেলায় বিশ্বকাপ ফুটবলের ফাইনাল খেলা নিয়ে বাগ্‌বিতণ্ডার পর সংঘর্ষে জড়িয়ে অন্তত সাতজন...

কুষ্টিয়ায় শিক্ষার্থীকে শ্লীলতাহানি, বরখাস্ত প্রধান শিক্ষককে পুলিশে সোপর্দ

কুষ্টিয়ার কুমারখালীতে পঞ্চম শ্রেণীর এক শিক্ষার্থীকে শ্লীলতাহানির মামলায় বরখাস্ত প্রধান শিক্ষককে বৃহস্পতিবার (১৫ ডিসেম্বর)...

কুষ্টিয়ায় পৃথক সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ২

কুষ্টিয়ায় পৃথক সড়ক দুর্ঘটনায় একটি শিশুসহ দু’জনের মৃত্যু হয়েছে।   বৃহস্পতিবার (১৫ ডিসেম্বর) দুপুরের দিকে...

পাসপোর্ট সংশোধনে সরকারের নতুন নির্দেশনা

এনআইডির তথ্য অনুযায়ী পাসপোর্ট রি-ইস্যুর নির্দেশ স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের জাতীয় পরিচয়পত্রে (এনআইডি) দেওয়া তথ্য অনুযায়ী পাসপোর্ট...

আরও পড়ুন

কুষ্টিয়ায় আর্জেন্টিনা-ব্রাজিল সমর্থকদের সংঘর্ষে আহত ৭

কুষ্টিয়া সদর উপজেলায় বিশ্বকাপ ফুটবলের ফাইনাল খেলা নিয়ে বাগ্‌বিতণ্ডার পর সংঘর্ষে জড়িয়ে অন্তত সাতজন...

কুষ্টিয়ায় পৃথক সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ২

কুষ্টিয়ায় পৃথক সড়ক দুর্ঘটনায় একটি শিশুসহ দু’জনের মৃত্যু হয়েছে।   বৃহস্পতিবার (১৫ ডিসেম্বর) দুপুরের দিকে...

কুষ্টিয়ায় স্বামী-স্ত্রী পরিচয়ে হোটেলে, কলেজছাত্রীর মৃত্যুর পর যুবক আটক

কুষ্টিয়ায় একটি আবাসিক হোটেলে শয্যা বিশ্বাস (১৮) নামে এক কলেজছাত্রীর মৃত্যু হয়েছে। এ ঘটনায়...