Thursday, February 29, 2024
প্রচ্ছদখুলনা বিভাগকুষ্টিয়াকুষ্টিয়ায় তালিকাভুক্ত মাদক ব্যবসায়ীরা এখনো ধরাছোঁয়ার বাইরে

কুষ্টিয়ায় তালিকাভুক্ত মাদক ব্যবসায়ীরা এখনো ধরাছোঁয়ার বাইরে

Published on

সরকার মাদক বিরুদ্ধে যুদ্ধ ঘোষণার পর চলমান অভিযানে কুষ্টিয়া এখনো বড় কোন মাদক ব্যবসায়ী ধরা পড়েনি। যদিও কথিত বন্দুক যুদ্ধে ৫ জন নিহত এবং প্রায় ডজন খানেক মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার হবার খবর এখন পর্যন্ত এই অভিযানের সাফল্য হিসেবে ধরা যায়।

কুষ্টিয়া পুলিশের গোয়েন্দা তালিকায় জেলার ৬ উপজেলার ১৫৭ জন ছোটবড় মাদক ব্যবসায়ীদের মোবাইল নম্বরসহ নাম রয়েছে। এর মধ্যে শীর্ষে অবস্থান সীমান্তবর্তী উপজেলা দৌলতপুরের। এখানে পুরো তালিকার অর্ধেকেরও বেশী মাদক ব্যবসায়ী পুলিশের হিসেবে তার সংখ্যা ৮১ জন। এরপরই রয়েছে কুষ্টিয়া সদর থানা। শহর, শহরতলী এবং উপজেলা মিলে এখানে মাদক ব্যবসায়ী হিসেবে মাত্র ৩২ জনকে তালিকাভূক্ত করা হয়েছে। এর সংখ্যা কম মনে হলেও কুমারখালী উপজেলার ছেউদিয়া আর লাহিনী পাড়া অর্থাৎ কুষ্টিয়া শহরতলী এসব এলাকা ধরে কুমারখালী উপজেলায় ২২ জন মাদক ব্যবসায়ী রয়েছে পুলিশের তালিকায়। এরপর রয়েছে মিরপুর উপজেলায় ১৩ জন এবং ভেড়ামারাতে ৬ জন। আর সবচেয়ে কম মাত্র ৩ জন মাদক ব্যবসায়ী রয়েছে খোকসা উপজেলায়। পুলিশের এই তালিকায় অনেক শীর্ষ মাদক ব্যবসায়ী কারবারীদের নাম নেই বলে জানা সেছে।

এধরনের ব্যবসা চলে সিন্ডিকেটের মাধ্যমে, সে সব সিন্ডিকেটের শীর্ষে বেশ কিছু ক্ষমতাবান রাজনৈতিক নেতা বা নেতার আশির্বাদ রয়েছে। অথচ এই তালিকায় তেমন কোন ব্যক্তির নাম খুঁজে পাওয়া যাষ্টেয় না। নাম প্রকাশে অনিষ্টয়ুক এক মাদকসেবী জানিয়েছে শুধুমাত্র মিরপুর উপজেলার পোড়াদহতেই ২০ জনের বেশী সক্রিয় ব্যবসায়ী রয়েছে। কুমারখালীর ছেউড়িয়া, মন্ডলপাড়া এবং লাহিনী এলাকায় ৩০ জনের বেশী মাদশের আড়তদার রয়েছে। সচেতন মহল মনে করে, সিন্ডিশেটের নিচের পর্যায়ের খুচরা বিক্রেতাদের ধরে ক্রসফায়ার বন্দী করলেই মাদশের প্রসার সাময়িক ভাবেবন্ধ হতে পারে। কিন্তু যত সময় সিন্ডিশেটের মূল মাথাকেহাতের মুঠোয় পুরা না যাবেতত সময় মাদক নির্মূল অসম্ভব। কারন অভিযান বন্ধ হলেই আবার তারা নতুন এজেন্ট ডিলার নিয়োগ দেবে।

মাদক ব্যবসায়ীদের সাথে দুই শ্রেনীর পেশাদার লোকজনের ঘনিষ্ঠতা ঐতিহাসিক ভাবে প্রচলিত। এরা হষ্টেয় রাজনৈতিক নেতা আর পুলিশ, এদের পৃষ্ঠপোষকতা ছাড়া কখনোই মাদক ব্যবসার প্রসার ঘটা সম্ভব না। বৃহত্তর কুষ্টিয়া জেলার ৩টি জেলায় ভারতের সাকেসীমান্ত থাকার কারনে এখানে এই মাদক ব্যবসা সফল এবং লাভজনক। সীমান্তরক্ষী বাহিনীও এই সিন্ডিকেটের অংশীদার হয়ে পড়েছে কখনো কখনো। এ ছাড়া শুধু ভারত সীমান্ত দিয়ে ফেন্সিডিল নয় বর্তমানে প্রচুর পরিমানে ইয়াবার অনুপ্রবেশ ঘটেছে। সেগুলো সম্পর্কে সোয়েন্দা তথ্যের দূর্বলতা লক্ষ্য করা সেছে।

১৫৭ জন মাদক ব্যবসায়ীদের তালিকার সাথে তাদের মোবাইল নাম্বার পর্যন্ত রয়েছে তা অবশ্যই কুষ্টিয়া পুলিশের পরিশ্রম যা প্রশংসার দাবী রাখে। তবে পুনরায় নতুন তালিকা করা হচ্ছে বলে নির্ভরযোগ্য সোয়েন্দা সূত্রে জানা গেছে।

সর্বশেষ

কুষ্টিয়ায় আর্জেন্টিনা-ব্রাজিল সমর্থকদের সংঘর্ষে আহত ৭

কুষ্টিয়া সদর উপজেলায় বিশ্বকাপ ফুটবলের ফাইনাল খেলা নিয়ে বাগ্‌বিতণ্ডার পর সংঘর্ষে জড়িয়ে অন্তত সাতজন...

কুষ্টিয়ায় শিক্ষার্থীকে শ্লীলতাহানি, বরখাস্ত প্রধান শিক্ষককে পুলিশে সোপর্দ

কুষ্টিয়ার কুমারখালীতে পঞ্চম শ্রেণীর এক শিক্ষার্থীকে শ্লীলতাহানির মামলায় বরখাস্ত প্রধান শিক্ষককে বৃহস্পতিবার (১৫ ডিসেম্বর)...

কুষ্টিয়ায় পৃথক সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ২

কুষ্টিয়ায় পৃথক সড়ক দুর্ঘটনায় একটি শিশুসহ দু’জনের মৃত্যু হয়েছে।   বৃহস্পতিবার (১৫ ডিসেম্বর) দুপুরের দিকে...

পাসপোর্ট সংশোধনে সরকারের নতুন নির্দেশনা

এনআইডির তথ্য অনুযায়ী পাসপোর্ট রি-ইস্যুর নির্দেশ স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের জাতীয় পরিচয়পত্রে (এনআইডি) দেওয়া তথ্য অনুযায়ী পাসপোর্ট...

আরও পড়ুন

কুষ্টিয়ায় স্বামী-স্ত্রী পরিচয়ে হোটেলে, কলেজছাত্রীর মৃত্যুর পর যুবক আটক

কুষ্টিয়ায় একটি আবাসিক হোটেলে শয্যা বিশ্বাস (১৮) নামে এক কলেজছাত্রীর মৃত্যু হয়েছে। এ ঘটনায়...

ব্রাজিলের পতাকা টাঙাতে গিয়ে কুষ্টিয়ার মাদ্রাসা ছাত্রের মৃত্যু

কুষ্টিয়ার কুমারখালীতে সুপারি গাছে ব্রাজিলের পতাকা টাঙাতে গিয়ে বিদ্যুতায়িত হয়ে মিঠু শেখ (১৪) নামে...

যশোর বোর্ডে পাসের হার ৯৫% | কুষ্টিয়ায় শীর্ষে জিলা স্কুল, জিপিএ-৫ পেয়েছে ২৪৩ জন

মাধ্যমিক পরীক্ষার ফলাফলে এ বছর যশোর শিক্ষা বোর্ডে জিপিএ-৫ প্রাপ্তির সব রেকর্ড ভঙ্গ করেছে।...