Monday, June 24, 2024
প্রচ্ছদকুষ্টিয়াকুমারখালীকালবৈশাখী ঝড়ের ছোবলে কুমারখালীর কলাচাষীদের মাথায় হাত

কালবৈশাখী ঝড়ের ছোবলে কুমারখালীর কলাচাষীদের মাথায় হাত

Published on

কালবৈশাখী ঝড়ের ছোবলে ব্যাপক ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে কুষ্টিয়ার কুমারখালীর কলাচাষীরা। গত রবিবার বিকালে কালবৈশাখী ঝড় আঘাত হানে। এতে উপজেলার শিলাইদহ ও জগন্নাথপুর ইউনিয়নের কলাচাষীরা ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে। সরেজমিনে গিয়ে দেখাগেছে, শিলাইদহ ইউনিয়নের কল্যাণপুর গ্রামের বিপুল পরিমান জমির কলাগাছ ঝড়ের তান্ডবে দুমড়ে মুচড়ে গেছে। কল্যাণপুর গ্রামের কলাচাষী ও ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ নেতা এনায়েত আলী জানান, তাদের গ্রামের (কল্যাণপুর) প্রায় দেড়শত বিঘা জমির কলাগাছ ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে। তিনি নিজেই প্রায় ৭ বিঘা জমিতে কলাচাষ করেছেন। এরমধ্যে পুরোপুরি ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে ৪ বিঘা জমির কলাগাছ। এ ছাড়াও মাঠে গিয়ে আলাপকালে জানাগেছে, কোরবান আলী, পাঁচু কুমার দাস সহ অনেকের জমির কলাগাছ মাটিতে পড়ে রয়েছে। পাঁচু কুমার দাস জানান, আমি খুবই গরীব চাষী। আর কয়েকমাসের মধ্যেই কলা বিক্রি করতে পারতাম, কিন্তু ঝড়ের আঘাতে আমার ক্ষেতের অধিকাংশ কলাগাছ মাটিতে লুটিয়ে পড়েছে। অন্যদিকে, উপজেলার জগন্নাথপুর ইউনিয়নের চরাঞ্চলের চরদয়ারামপুর, চর মহেন্দ্রপুর, চরভবানীপুর এলাকায় কালবৈশাখী ঝড়ের আঘাতে বিপুল সংখ্যক কলাগাছ মাটিতে লুটিয়ে পড়েছে। স্থানীয় কলাচাষীদের সাথে আলাপকালে জানাগেছে, রবিবার বিকালে কালবৈশাখী ঝড় তাদের এলাকায় আঘাত হেনেছে। এতে উঠতি কলাগাছের ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে। বিশেষ করে পুরাতন কলাগাছের  বেশি ক্ষতি হয়েছে। আর নতুন গাছগুলো ঝড়ের আঘাতে দুমড়ে মুচড়ে গেছে। চর দয়ারামপুর এলাকার হবিবর রহমান ও শরীফুল ইসলাম জানান, কালবৈশাখী ঝড়ে তাদের বাগানের অধিকাংশ কলাগাছ কলাসহ মাটিতে পড়ে গিয়েছে। মাটিতে লুটিয়ে পড়া যাওয়া অধিকাংশ গাছেই অপরিপক্ক কলা রয়েছে। যা বাজারে বিক্রি করা সম্ভব হবে না। এ ছাড়াও চর মহেন্দ্রপুর, চর ভবানীপুর এলাকায় আবুল হোসেন কাজী, রবিউল, খলিল, কালাম, মামুন, সোবাহান ও ওহাব খান সহ আরো অনেকে কলাচাষী ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছেন। সরেজমিনে গিয়ে দেখাগেছে, ঝড়ের আঘাতে চরমহেন্দ্রপুর এলাকার অধিকাংশ জমির পুরাতন কলাগাছ কলাসহ মাটিতে লুটিয়ে পড়েছে। আর পড়ে যাওয়া গাছের কলাগুলো এখনো বিক্রির উপযোগী হয়নি। চাষীরা জানান, সামান্য কিছু কলা বিক্রি করা গেলেও ঝড়ে ভেঙ্গে পড়ার কারণে নায্যমূল্য পাওয়া যাচ্ছেনা। জগন্নাথপুর ইউনিয়নের দায়িত্বপ্রাপ্ত উপ সহকারি কৃষি অফিসার মো: আরিফুল ইসলাম জানান, জগন্নাথপুর ইউনিয়নে নতুন ও পুরাতনসহ প্রায় ১১০ হেক্টর জমিতে কলার চাষ করা হয়েছে। এর মধ্যে ঝড়ে ক্ষতি হয়েছে প্রায় ২০/২৫ হেক্টর জমির কলাগাছ। ঝড়ের আঘাতে মাটিতে পড়ে যাওয়া গাছগুলোর মধ্যে অধিকাংশই পুরাতান কলাগাছ। আর দুই-এক মাসের মধ্যেই ওই গাছগুলোর কলা বিক্রির উপযোগী হতো।

সর্বশেষ

কুষ্টিয়ায় আর্জেন্টিনা-ব্রাজিল সমর্থকদের সংঘর্ষে আহত ৭

কুষ্টিয়া সদর উপজেলায় বিশ্বকাপ ফুটবলের ফাইনাল খেলা নিয়ে বাগ্‌বিতণ্ডার পর সংঘর্ষে জড়িয়ে অন্তত সাতজন...

কুষ্টিয়ায় শিক্ষার্থীকে শ্লীলতাহানি, বরখাস্ত প্রধান শিক্ষককে পুলিশে সোপর্দ

কুষ্টিয়ার কুমারখালীতে পঞ্চম শ্রেণীর এক শিক্ষার্থীকে শ্লীলতাহানির মামলায় বরখাস্ত প্রধান শিক্ষককে বৃহস্পতিবার (১৫ ডিসেম্বর)...

কুষ্টিয়ায় পৃথক সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ২

কুষ্টিয়ায় পৃথক সড়ক দুর্ঘটনায় একটি শিশুসহ দু’জনের মৃত্যু হয়েছে।   বৃহস্পতিবার (১৫ ডিসেম্বর) দুপুরের দিকে...

পাসপোর্ট সংশোধনে সরকারের নতুন নির্দেশনা

এনআইডির তথ্য অনুযায়ী পাসপোর্ট রি-ইস্যুর নির্দেশ স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের জাতীয় পরিচয়পত্রে (এনআইডি) দেওয়া তথ্য অনুযায়ী পাসপোর্ট...

আরও পড়ুন

কুষ্টিয়ায় শিক্ষার্থীকে শ্লীলতাহানি, বরখাস্ত প্রধান শিক্ষককে পুলিশে সোপর্দ

কুষ্টিয়ার কুমারখালীতে পঞ্চম শ্রেণীর এক শিক্ষার্থীকে শ্লীলতাহানির মামলায় বরখাস্ত প্রধান শিক্ষককে বৃহস্পতিবার (১৫ ডিসেম্বর)...

ব্রাজিলের পতাকা টাঙাতে গিয়ে কুষ্টিয়ার মাদ্রাসা ছাত্রের মৃত্যু

কুষ্টিয়ার কুমারখালীতে সুপারি গাছে ব্রাজিলের পতাকা টাঙাতে গিয়ে বিদ্যুতায়িত হয়ে মিঠু শেখ (১৪) নামে...

কুষ্টিয়া কুমারখালী | পোড়া কয়লা বিক্রি করে ভাগ্য বদল, মাসে আয় দুই লাখ

জ্বালানি হিসেবে ব্যবহার করা হয় বিভিন্ন গাছের কাঠ। এই কাঠ পুড়েই হয় কয়লা। আর...