Thursday, May 23, 2024
প্রচ্ছদখুলনা বিভাগচুয়াডাঙ্গাএক শিশুর মৃত্যু ও এক মহিলা মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ছে

এক শিশুর মৃত্যু ও এক মহিলা মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ছে

Published on

চুয়াডাঙ্গা আলমডাঙ্গা ইউনাইটেড মেডিক্যাল সেন্টারে ডাক্তারের ভুল চিকিৎসায় এক শিশুর মৃত্যু অপর এক মহিলা ২বার অপারেশনের পরেও মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ছে।

গতকাল শনিবার আলমডাঙ্গা হাজীমোড়ে অবস্থিত ইউনাইটেড মেডিক্যাল সেন্টারে রোগীর পরিবারের লোকজন সাংবাদিকদের কাছে কান্না জড়িত কণ্ঠে ইউনাইটেড মেডিক্যাল সেন্টারের চিকিৎসকদের ভুল চিকিৎসার বর্ণনা দেয়।

জানাগেছে, আলমডাঙ্গা বাবুপাড়ার সোহাগের স্ত্রী সিমা খাতুন সন্তান সম্ভাবা হলে এখানে ভর্তি হয়। ভর্তির পর মেহেরপুর-গাংনী হেলথ কমপ্লেক্সের ডাক্তার বিডি দাস পিকলু ওই রাতেই সিমার অপারেশন করলে একটি কন্যা সন্তান ভূমিষ্ঠ হওয়ার পরপরই রোগী ও শিশুর অবস্থার অবনতি হলে রাজশাহী মেডিক্যাল কলেজে রেফার করে। রাজশাহী মেডিক্যাল কলেজের কর্তৃব্যরত চিকিৎসক শিশুটি মৃত বলে ঘোষণা করেন এবং শিশুর মা আশংঙ্কাজনক অবস্থায় রাজশাহী মেডিক্যাল কলেজে ভর্তি হয়ে চিকিৎসাধীন আছে।

তাছাড়া গত ১৯ জুলাই আলমডাঙ্গার জেহালা ইউনিয়নের ছোট পুটিমারী গ্রামের তানজেদ আলীর মেয়ে রোজিনা খাতুন (৩০) বাড়িতে গুরুত্বর অসুস্থ্য হলে তাকে আলমডাঙ্গা ইউনাইটেড মেডিক্যাল সেন্টারে ভর্তি করে। ভর্তির একদিন পর ডাঃ বিডি দাস পিকলু রোজিনার অপারেশন করে। অপারেশনের দুইদিন পর রোগি বাড়িতে যেয়ে চরম অসুস্থ হয়ে পড়লে পুনরায় ওই ক্লিনিকে ভর্তি করে এবং ওই দিনই ২য় বার ডাক্তার বিডি দাস পিকলু অপারেশন করে। অপারেশনের পর রোগীর অবস্থা সংকটজনক হওয়ায় তাকে উন্নতমানের চিকিৎসা করানোর জন্য রাজশাহীতে রেফার করা হয়।

রেফার করার পর রোগীর পরিবারের লোকজন ক্লিনিকের মালিকের সাথে বাকবিতন্ডাতে জড়িয়ে পড়ে। তার অত্যন্ত গরীব, পরপর দুইবার অপারেশন করার খরচ জোগাতে তাদের হিমশীম খেতে হয়েছে। ক্লিনিকে ভর্তি করার সময় ক্লিনিক কর্তৃপক্ষ বারবার বলেছে আমরা বিশেষজ্ঞ ডাক্তার দিয়ে অপারেশন করাবো। রোগীর অপারেশনের সময় ডাক্তার ৫ ব্যাগ রক্ত লাগবে জানালে, রোগীর পরিবার ৫ ব্যাগ রক্ত সরবরাহ করে। ভুল চিকিৎসার কারণে রোজিনা এখন মৃত্যু শয্যায়। এখন ক্লিনিকের লোকজন রোগীকে দ্রুত অন্যত্র সরিয়ে দেয়ার চেষ্টা করছেন।

এ ব্যাপারে আলমডাঙ্গার বিশিষ্ট সমাজসেবক শহিদুল কাউনাইন টিলুসহ বেশকিছু লোকজন ক্লিনিকের মালিকের নিকট অনুরোধ করেন রোগীকে সুষ্টভাবে চিকিৎসা করার জন্য। কিন্তু ক্লিনিক কর্তৃপক্ষ বিভিন্ন তাল বাহানা করে রোগীকে ক্লিনিক থেকে বের করে দিতে চেষ্টা চালাচ্ছেন।

এ ব্যাপারে স্থানীয় সাংবাদিকরা ক্লিনিকের মালিক ও ডাঃ বিডি দাসের সাথে কথা বলতে গেলে তারা বিষয়টি এড়িয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে। এ পর্যায়ে সাংবাদিকদের সাথে অসদাচরন করে। জানাযায়, স্থানীয় কিছু প্রভাবশালী ব্যক্তিদের মাধ্যমে ব্যাপারটি ধামাচাপা দেওয়ার জন্য জোর তদবীর চালাচ্ছিল।

উল্লেখ্য আজ থেকে ১৫ দিন আগে আলমডাঙ্গা উপজেলা নির্বাহী অফিসার রাহাত মান্নান ভ্রাম্যমান আদালত বসিয়ে আলমডাঙ্গা ইউনাইটেড মেডিক্যাল সেন্টারে অব্যবস্থাপনা, অপরিচ্ছন্নতা, নিয়মিত চিকিৎসক না থাকার কারনে ২৫ হাজার টাকা জরিমানা আদায় করেন।

সর্বশেষ

কুষ্টিয়ায় আর্জেন্টিনা-ব্রাজিল সমর্থকদের সংঘর্ষে আহত ৭

কুষ্টিয়া সদর উপজেলায় বিশ্বকাপ ফুটবলের ফাইনাল খেলা নিয়ে বাগ্‌বিতণ্ডার পর সংঘর্ষে জড়িয়ে অন্তত সাতজন...

কুষ্টিয়ায় শিক্ষার্থীকে শ্লীলতাহানি, বরখাস্ত প্রধান শিক্ষককে পুলিশে সোপর্দ

কুষ্টিয়ার কুমারখালীতে পঞ্চম শ্রেণীর এক শিক্ষার্থীকে শ্লীলতাহানির মামলায় বরখাস্ত প্রধান শিক্ষককে বৃহস্পতিবার (১৫ ডিসেম্বর)...

কুষ্টিয়ায় পৃথক সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ২

কুষ্টিয়ায় পৃথক সড়ক দুর্ঘটনায় একটি শিশুসহ দু’জনের মৃত্যু হয়েছে।   বৃহস্পতিবার (১৫ ডিসেম্বর) দুপুরের দিকে...

পাসপোর্ট সংশোধনে সরকারের নতুন নির্দেশনা

এনআইডির তথ্য অনুযায়ী পাসপোর্ট রি-ইস্যুর নির্দেশ স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের জাতীয় পরিচয়পত্রে (এনআইডি) দেওয়া তথ্য অনুযায়ী পাসপোর্ট...

আরও পড়ুন

চুয়াডাঙ্গায় করোনা উপসর্গ নিয়ে বৃদ্ধের মৃত্যু

করোনার উপসর্গ নিয়ে  চুয়াডাঙ্গা জেলা মোটরশ্রমিক ইউনিয়নের সাবেক সহ-সভাপতি কাওছার আলী শাহ (৬৫) নামে এক...

করোনা: চুয়াডাঙ্গায় ৩ পুলিশ সদস্যসহ নতুন করে আক্রান্ত ৭

চুয়াডাঙ্গায় নতুন করে ৩ পুলিশসহ ৭ জনের করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়েছে। এ নিয়ে জেলায় এ...

চুয়াডাঙ্গায় ওসিসহ আরও ১০ জনের করোনা শনাক্ত

চুয়াডাঙ্গায় দর্শনা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি-তদন্ত), তিন সহকারী উপ-পরিদর্শক (এএসআই) ও দুই সদস্যসহ নতুন করে...